বুধবার ১০ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ২৬শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

আর্মেনিয়ার বিপক্ষে আজারবাইজানের হয়ে লড়ছে পাকিস্তানি সেনারা?

নিউজটি শেয়ার করুন

অনলাইন ডেস্ক:

বিতর্কিত নাগোর্নো-কারাবাখ অঞ্চল নিয়ে আর্মেনিয়া এবং আজারবাইজানের মধ্যে যুদ্ধ চলছে। এই যুদ্ধে আর্মেনিয়ার বিপক্ষে আজারবাইজানের হয়ে যুদ্ধ করছে পাকিস্তানের সেনারা। আজারবাইজানের দুজন স্থানীয় ব্যক্তির মধ্যে টেলিফোনে আলাপের সময় দেশটিতে পাকিস্তানের সেনাদের উপস্থিতির বিষয়ে উল্লেখ করা হয়।

ফ্রিনিউজ.এম প্রচারিত সেই টেলিফোন আলাপের বরাত দিয়ে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম জি নিউজের এক প্রতিবেদনে এ দাবি করা হয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, আজারবাইজানে পাকিস্তানি সেনাদের উপস্থিতি সম্পর্কে স্থানীয়দের একে অপরের সঙ্গে কথা বলতে শোনা গেছে।

 

টেলিফোন আলাপে শোনা যায়, স্থানীয়রা একে অপরকে বলছিলেন, আমরা কীভাবে লিখতে পারি? আমাদের টাকা নেই। আমরা ভালো আছি, চিন্তার কিছু নেই। ৭ থেকে ৮টি গ্রাম মুক্ত করা হয়েছে। ভয় পেও না। হ্যাঁ, আমি জানি। আমি ইনস্টাগ্রামে দেখেছি। ফিজুলি, আগদাম দখল থেকে মুক্তি পেয়েছে। আমাদের পক্ষ বলছে, মার্ভ পর্বতও দখলে নিয়েছি। আর পাকিস্তানের সেনাদের একত্রিত করে আগদামের দিকে নেওয়া হয়েছে।

নাগোর্নো-কারবাখ অঞ্চল নিয়ে আর্মেনিয়া এবং আজারবাইজানের মধ্যে যুদ্ধ শুরু হয়েছে ২৭ সেপ্টেম্বর থেকে। তবে দুই দেশই যুদ্ধ শুরুর দায় নিতে নারাজ। তারা একে অপরের বিরুদ্ধে অভিযোগ করছে এই বলে যে, আমরা নই বরং অপরপক্ষ যুদ্ধ শুরু করেছে।

এদিকে যুদ্ধ শুরুর জন্য আর্মেনিয়াকে দায়ী করেছে পাকিস্তান। দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে বলেছে, সংঘাত তীব্র হওয়ার আগেই আর্মেনিয়াকে তার সামরিক পদক্ষেপ বন্ধ করতে হবে।

দক্ষিণ এশিয়ায় পাকিস্তানই প্রথম দেশ যে আর্মেনিয়া-আজারবাইজান সংঘর্ষ নিয়ে মন্তব্য করেছে। তুরস্কের সঙ্গে সুর মিলিয়ে আজারবাইজানকে সমর্থন করছে ইসলামাবাদ।

বিবৃতিতে আরো বলা হয়, নাগোর্নো-কারাবাখ অঞ্চলের সাম্প্রতিক পরিস্থিতি নিয়ে পাকিস্তান গভীরভাবে উদ্বিগ্ন। তেরতার, আগদাম, ফিজুলি এবং জাবরাইলে আর্মেনিয় বাহিনীর হামলা দুর্ভাগ্যজনক।

এতে আরো বলা হয়, এ পরিস্থিতিতে পাকিস্তান অবশ্যই ভ্রাতৃপ্রতিম দেশ আজারবাইজানের পাশে দাঁড়াচ্ছে এবং তার আত্মরক্ষার অধিকারকে সমর্থন করছে। আমরা নাগোর্নো-কারাবাখ অঞ্চল নিয়ে আজারবাইজানের অবস্থানকে সমর্থন জানাচ্ছি।

আঙ্কারার মতো, ইসলামাবাদও প্রথম বিশ্বযুদ্ধের সময় আর্মেনীয় গণহত্যা স্বীকৃতি দেয়নি। প্রথম বিশ্বযুদ্ধের সময়, অটোম্যান বা বর্তমান তুরস্কে ১৫ লাখ জাতিগত আর্মেনিয়ান নিহত হয়েছিল। তুরস্ক এখনো পর্যন্ত সেই গণহত্যা অস্বীকার করে চলেছে। তবে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, রাশিয়াসহ বেশ কয়েকটি দেশ এটি স্বীকৃতি দিয়েছে। সূত্র : জি নিউজ।

এই বিভাগের আরও খবর

শ্রীলঙ্কায় এক ধাক্কায় বিদ্যুতের দাম বাড়ল ৭৫ শতাংশ

নিউজটি শেয়ার করুন

নিউজটি শেয়ার করুনঅনলাইন ডেস্ক: অর্থনৈতিক ও জ্বালানি সংকটে জর্জরিত শ্রীলঙ্কায় বিদ্যুতের দাম এক ধাক্কায় বেড়েছে ৭৫ শতাংশ। আগামীকাল (১০ আগস্ট) থেকে বিদ্যুতের নতুন এ মূল্য

৪ বন্দরে ৩ নম্বর সতর্কতা সংকেত

নিউজটি শেয়ার করুন

নিউজটি শেয়ার করুনঅনলাইন ডেস্ক: ওড়িষ্যা পশ্চিমবঙ্গ উপকূলের অদূরে উত্তরপশ্চিম বঙ্গোপসাগর এলাকায় অবস্থিত সুস্পষ্ট লঘুচাপটি ওড়িষ্যা উপকূলের অদূরে উত্তরপশ্চিম বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন এলাকায় অবস্থান করছে। এর

গাজায় হামলা বন্ধে ব্যবস্থা নিন, বিশ্ববাসীকে আহ্বান বাংলাদেশের

নিউজটি শেয়ার করুন

নিউজটি শেয়ার করুনঅনলাইন ডেস্ক: ফিলিস্তিনের গাজা এবং আল আকসা মসজিদে নারী-শিশুসহ বেসামরিক নাগরিকদের ওপর ইসরায়েলি বাহিনীর সহিংস হামলায় বাংলাদেশ গভীর উদ্বেগ প্রকাশ ও নিন্দা জানিয়েছে।

পশ্চিমা যন্ত্রাংশে ‘শক্তিশালী’ রাশিয়ার সমরাস্ত্র: গবেষণা

নিউজটি শেয়ার করুন

নিউজটি শেয়ার করুনঅনলাইন ডেস্ক: সমরাস্ত্র তৈরি করতে রাশিয়া ৪৫০টির বেশি উপকরণ বা যন্ত্রাংশ পশ্চিমা দেশগুলো থেকে এনেছে। গবেষণায় উঠে এসেছে, যুদ্ধক্ষেত্রে জব্দ হওয়া রুশ অস্ত্রের

ইউক্রেনের পরমাণু স্থাপনায় হামলা আত্মঘাতী তৎপরতা: জাতিসংঘ

নিউজটি শেয়ার করুন

নিউজটি শেয়ার করুনঅনলাইন ডেস্ক ইউক্রেনের দক্ষিণাঞ্চলীয় জাপোরিঝিয়া শহরে অবস্থিত ইউরোপের সবচেয়ে বড় পরমাণু বিদ্যুৎকেন্দ্রে ব্যাপকভাবে বোমাবর্ষণের ঘটনায় কঠোর নিন্দা ও উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন জাতিসংঘ মহাসচিব

টিটিপির শীর্ষ নেতা খালিদ খোরাসানি নিহত: আল জাজিরার রিপোর্ট

নিউজটি শেয়ার করুন

নিউজটি শেয়ার করুনঅনলাইন ডেস্ক রাস্তার পাশে পেতে রাখা বোমার বিস্ফোরণে পাকিস্তানভিত্তিক তালেবানের শীর্ষ নেতা নিহত হয়েছেন বলে আল জাজিরার খবরে দাবি করা হয়েছে। পাকিস্তানের কর্মকর্তাদের বরাতে

%d bloggers like this: